আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে যা যা প্রয়োজন ?

জিরো ইনভেষ্টে আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং, ধরাবাহিক পর্ব ৩ এ আপনাকে স্বাগতম । আগের পোষ্ট গুলাতে, আমাজন এফিলিয়েট / ইনফ্লুয়েন্সার সম্পর্কে ধারনা দিয়েছি।।যদি আগের পোষ্টগুলি না পড়ে থাকেন, ওয়েবসাইট থেকে পড়ে আসুন। এ পোস্ট এ বলবো আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে যা যা প্রয়োজন

কারন আমি, আগের পোষ্ট গুলাতে আমাজন ইনফ্লুয়েন্সার করতে কি কি প্রয়জন সে বিষয় বলেছি । ওয়েব সাইট দিয়ে এফিলিয়েট করতে যা যা লাগে |আমি আপনাদের কে বলেছি, জিরো ইনভেষ্টে কিভাবে এফিলিয়েট করা যাই সে বিষয় আপনাদের যথেষ্ট উপায় দেখাবো ।

কিন্তু, আপনার ওয়েবসাইট বানাতে হবে অবশ্যই । কিন্তু কেও তো আপনাকে ফ্রি ডোমেইন হোষ্টেং দিবেনা। মিনিমাম একটা ওয়েবসাইট বানানোর জন্য, ওয়েবসাইটের নাম ও সার্ভার ভাড়া নিতে, ৩০০০ টাকা লাগবে, এক বছরের জন্য।আর সাথে অবশ্যই কম্পিউটার লাগবে, যদি আপনার কম্পিউটার না থাকে, তবে ফোন থেকে আপাতত্ত পড়াশুনা করতে থাকেন ।

বা, একটি পুরাতন কম্পিউটার কিনে ফেলেন। (৬ -৭ হাজার টাকায় ও পুরাতন পিসি পাওয়া যায়, আর ১০,০০০ টাকা হলে পুরাতন ল্যাপটপ পাওয়া যায়)যদি মনে করেন, আপনার কম্পিউটার আছে, কিন্তু ৩০০০ টাকা খরচ করে ওয়েব সাইট বানানোর, এবালিটি নেই (যদিও এই মুহুর্তে ওয়েব সাইট বানাতে হবেনা)বা, আপনি ইংরেজিতে অনেক দূর্বল, আপনার দ্বারা, ইমপ্রুভ করা আগামি ৪-৫ মাসে ও সম্ভাব না।।তবে, আপনি আমাজন ইনফ্লুয়েন্সার করেন ।

আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে কি প্রয়োজন ?

আগামি, পোষ্টে আমাজন ইনফ্লুয়েন্সার সম্পর্কে বিস্তারিত, গাইড লাইন দিব । এ পোষ্টে,, এফিলিয়েট শুরু করার প্রয়জনিয় গাইড লাইন ও কোথা থেকে শুরু করতে হবে এসব বিষয়।আমি আগের পোষ্ট গুলাতে বলেছি, এস.ই.ও শিখতে হবে । কেন শিখতে হবে তাও বর্ননা করেছি । এখন শেয়ার করতে যাচ্ছি, এস.ই.ও সম্পর্কে বিস্তারিত |

এস.ই.ও টা কি, খায় নাকি মাথায় দেয়?

যদি এস.ই.ও এক কথায় জানতে চান তবে বলবো, সার্চ ইঞ্জিন, অপটিমাইজেশন । আচ্ছা সার্চ ইঞ্জিন কি?সার্চ ইঞ্জিন হলো যে ওয়েব সাইটে আমরা সার্চ করে, আমাদের প্রয়জনিয় ডাটা খুজে পায়, (যেমন, গুগল, ইয়াহু , বিং ইত্যাদি)আচ্ছা, সার্চ ইঞ্জিন বুঝলাম,

এবার অপটিমাইজেশন টা আবার কি?

এক কথায় বোঝার জন্য, আমি বলবো অপটিমাইজেশন মানে উন্নতি ।

সেকি, তাইলে আমরা গুগল, বা ইয়াহু বা বিং কে উন্নতি করবো ? বা, কি উন্নতি করবো সার্চ ইঞ্জিনে ?

সার্চ ইঞ্জিনে, আপনার ওয়েব পেজ কে উন্নতি করতে হবে।

ওয়েব পেজ কি?

এইযে আপনি পোষ্টটি পড়ছেন, এটি একটি ওয়েব পেজ, এটি ওয়েবসাইটের ওয়েব পেজ, আমার ওয়েব সাইটের।

(পেজবুকে পেজ ও একটি ওয়েব পেজ, আবার ফেজবুকের প্রতিটি পোষ্ট ও একটি ওয়েব পেজ )

অথাৎ, আপনি যদি গুগলে সার্চ করেন, “সেরা মোবাইল ফোন” গুগলে যে রেজাল্ট গুলা দেখতে পান, এবং যে পেজ গুলা ওপেন করে তথ্য দেখেন সবই ওয়েব পেজ।

আচ্ছা বুজলাম, ওয়েব পেজ কি।

তাহলে ওয়েব পেজ কে উন্নতি করা টা আবার কি ?

মনে করুন, আপনার একটা ওয়েবসাইট আছে, সাইটের একটা পেজে আপনি, এবছরের সেরা মোবাইল গুলা নিয়ে রিভিভ ও বর্ণনা করেছেন । এখন আপনি কি চান আপনার, পোষ্টটি, বা ওয়েব পেজেটির মোবাইল রিভিউ আপনি একাই পড়েন ? (পেজ বা পোষ্ট একই বিষয় )

কখনও না আপনি চান অন্যরা এসে আপনার পেজ বা পোষ্টের ডাটা গুলা পড়ুক । তাহলে কিভাবে, অন্যরা পড়বে?

আপনি কি, সবাই কে দাওয়াত দিয়ে এনে বলবেন, ভাই আমার পোষ্টটি পড়ুন ? না, এই.ই.ও এক্সপার্ট রা এমন টা করেনা বা চায়না । এস.ই.ও এক্সপার্টরা চায়, কেও যদি গুগলে সার্চ করে, “বেষ্ট মোবাইল ফোন”তাহলে, তার মোবাইল নিয়ে রিভিউ করা পেজটি, গুগলে প্রথম রেজাল্টে দেখাক এবং সে পোষ্টি ক্লিক করে সেই বেক্তিটি পড়ুক, যে সেরা মোবাইলের রিভিউ খুজতেছে ।

আর যেসব কাজ গুলা করলে গুগল বা অন্য সার্চ ইঞ্জিন গুলাতে, “বেষ্ট মোবাইল রিভিউ ” লিখে সার্চ করলে, আপনার ঐ পেজ টি, উন্নতি হয়ে প্রথম রেজাল্টে আসবে । তাকে আমার ভাষায়, এস.ই.ও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বলে ।

তাহলে আপনি এতখনে বুঝে গেছেন, এস.ই.ও কি, বা আপনাকে কি উন্নতি করতে হবে । আচ্ছা সব বুঝলাম, তাহলে ওয়েব পেজ উন্নতি করে আমার লাভ কি? বা, এর সাথে আবার আমাজন এফিলিয়েটের সম্পর্ক টা কি?

ধরুন আপনি আমাজনের, একটি মোবাইল বিক্রি করবেন, এখন।আপনি, আপনার ওয়েব পেজে, ঐ মোবাইল টি নিয়ে, ভাল ভাল কথা লিখলেল, এবং বললেন এই লিংকে যেয়ে, পন্যটি কিনতে পারবেন । আর, গুগলে এস.ই.ও করলেন, এখন যারা, বেষ্ট মোবাইল লিখে সার্চ করলো, তারা আপনার পোষ্টটি খুজে পেল ।

সে কিন্তু আপনি, রিভিও করা লিংকে যেয়ে মোবাইল টি কিনবে । (কারন আগের পোষ্ট গুলাতে বলেছি, আমেরিকান রা অনলাইন থেকে প্রডাক্ট কিনতে পছন্দ করে বেশি)

আচ্ছা তাহলে, আমি ও তো বেষ্ট মোবাইল লিখে গুগলে সার্চ করতে পারি, তাই বলে আমি মোবাইল কিনবো নাকি?

আচ্ছা, আপনি ভাবেন আপনি কেনবেষ্ট মোবাইল লিখে গুগলে সার্চ করবেন ।হয়ত একটি মোবাইল, এখন কিনবেন বা হয়ত কিচুদিন পর কিনবেন। তাহলে, অবশ্যই আপনি একজন সম্ভাব্য ক্রেতা ।

১০০ জন যদি সার্চ করে তার মধ্যে ২০ জন তো হবে যে আজই মোবাইল টি কিনতে চায় ।

আচ্ছা বুঝলাম, তাহলে এবার আমাকে বোঝান, মোবাইল তো আমাজনে আছে, তাহলে, কেন আপার ওয়েব পেজে এসে, আবার সেই লিংকে ডুকে আমাজন থেকে কিনবে কেন ?

সরাসরি তো আমাজন থেকে ই কিনতে পারতো।।আচ্ছা, মোবাইল তো শোরুমে আছে, তাহলে মোবাইল কেনার আগে গুগলে কেন সেরা মোবাইল কোনটা (বা এরকম কিচু )লিখে সার্চ দেন কেন??সার্চ দেন কারন আপনি, জানতে চান ভাল মোবাইল কোনটা, কোনটায় র্যাম, রম বেশি, কোনটা ভাল কোয়ালিটি, কোনটা কামেরা পিক্সেল বেশি, কোনটায় পাবজি গেম খেললে হ্যাং করবে না😂ইত্যাদি দেখার জন্য।

এসব দেখে আপনি পরদিন, দোকানে যেয়ে, বলবেন, ভাই অমুক মভেলের ফোনটা কিনতে চায়। কিন্তু, আপনার যদি ইচ্ছা থাকতো অনলাইন থেকে, মোবাইল টা কিনবেন।তবে, ঐ পোষ্টে যদি দারাজের লিংক দিয়ে বলতো এখান থেকে মোবাইল টি কিনতে পারবেন ।

আপনি কিন্তু ঐ লিংকের থ্রুতে যেয়ে, মোবাইল টি কিনতেন। নাকি, দারাজে যেয়ে সার্চ দিতেন, কোনটি ভাল মোবাইল লিখে ?

কি করতেন আপনি, ডিরেক্ট দারাজে যেয়ে সার্চ দিতেন ? নাকি, গুগলে খুজতেন, কোন মোবাইল ভাল, কোনটা ইউজার রা ব্যাবহার করে ভাল সার্ভিস পাচ্ছে এসব?আপনি ভেবে দেখেন।

হা, হয়ত কিচু মানুষ ডিরেক্ট, আমাজনে যেয়ে মডেল, কোয়ালিটি, কার্য়কারিতা, কাষ্টমার রিভিউ দেখে ডিরেক্ট কিনবে । কিন্তু আপনি তো তাদের কে টার্গেট করছেন না ।

আপনি, টার্গেট করছেন, গুগল বা অনান্য সার্চ ইঞ্জিন গুলা, যেখানে মানুষ পন্য কেনার আগে, গুনাগুন খুজতেছে, তারা পন্য কেনার আগে আমাজনে না যেয়ে গুগলে, আপনার রিভিউ ই খুজতেছে । তাহলে আপনি, এতক্ষনে বুঝে গেছেন, আমাজন এফিলিয়েটের সাথে, এস.ই.ও সম্পর্ক কি।

তবে, আপনার মাথায় হয়ত একটি প্রশ্ন ঘুরতেছে। আমি কিভাবে বুঝবো, কতজন মানুষ বা আমেরিকার মানুষ “বেষ্ট মোবাইল রিভিউ” লিখে সার্চ করে ?

গুগলের একটি, টুলস কিওয়ার্ড প্লানার, বা আরো অনেক টুলস (বা ওয়েব সাইট আছে) যেগুলা আপনাকে গত ৬ মাসের সার্চের এভারেজ ডাটা থেকে হিসাব করে বলে দিবে। আপনাকে একটা বিষয় বলা হয়নি। সেটা হলো কিওয়ার্ড।

কিওয়ার্ড কি?

ইচ্ছা করে ই পোষ্টের শেষের দিকে বলছি। কিওয়ার্ড হলো, যা লিখে আপনি গুগলে বা কোথাও সার্চ করেন।যেমন এখানে, ” বেষ্ট মোবাইল ” একটি কিওয়ার্ড । এস.ই.ও প্রথম ধাপ হলো, ভাল কিওয়ার্ড খুজে বের করা ।

অথ্যাৎ, এস.ই.ও হলো মার্কেটিং এর মাধ্যম বা উপায় ।

শেষ কথা

এস.ই.ও শুধু আমাজন এফিলিয়েট করার জন্য তা নয়, এস.ই.ও দিয়ে যেকোন সার্ভিস বা তথ্য মানুষের কাছে পৌছে দেয়া যায় ।এস.ই.ও একটি বিশাল সেক্টর।।সবই সেম, শুধু টেকনিক গুলা একটু ভিন্ন।তবে আমি শুধু , এফিলিয়েট করার পারপসে এস.ই.ও নিয়ে আলোচনা করবো।।এ পোষ্টে এস.ই.ও এবং আমাজন এফিলিয়েট নিয়ে অনেক ধারনা দিলাম।ধারাবাহিক ভাবে, পরবর্তি পোষ্টে আরো, বিস্তারিত শেয়ার করবো।।সাথে থাকার জন্য, ধন্যবাদ।।একদম নতুন রা হয়তো বুঝতে পারবেনা, তার জন্য আমার আগের পোষ্ট গুলো পড়ে ফেলুন।আর, ১ বার না বুঝলে ২-৩ বার পড়ুন।।আগের পোষ্ট খুজে না পেলে আমার প্রফাইলে টাইমলাইনে পেয়ে যাবেন।।পোষ্টি শেয়ার করবেন।আর, আপনার সেই বন্ধুকে, গ্রুফে এড করবেন যে, অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে চায়।

কোনকিচু না বুজলে, কমেন্টে জনাতে পারেন, ধন্যবাদ।।

Leave a Comment