কিভাবে নিশ রিসার্চ করবেন? নিশ নিয়ে আমার যত ধারনা

এই পোস্টএ কিভাবে নিশ রিসার্চ করবেন ও কিওয়ার্ড রিসার্চের বিস্তারিত গাইডলাইন দেখাবো।

বি:দ্র : এই টেকনিক গুলা শুধুমাত্র নতুন সাইটের জন্য, তবে একটু পুরাতন সাইটের জন্য ও এভাবে এপ্লাই করতে পারেন।

আমাজন, এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করার সবথেকে প্রথম ও কঠিন ধাপ হল সঠিক নিশ সিলেকশন করা। গতপর্বে, কিচু নিশ সম্পর্কে বেসিক ধারনা শেয়ার করেছিলাম।

নিশ সিলেকশন ও কিওয়ার্ড রিসার্চ কেন একই পর্বে রাখলাম? কারন কিওয়ার্ড রিসার্চ ই হলো নিশ সিলেকশনের ভিত্তি। কারন অনেকগুলা কিওয়ার্ড নিয়ে ই দাড় করানো হয় একটা নিশ।

কিভাবে নিশ রিসার্চ করবেন?

এক একজনের কিওয়ার্ড রিসার্চের ধরন এক এক রকম হয়। একেক জন একের রকম ভিত্তি তে বিশ্বাস করে কিওয়ার্ড কে লো কম্পেটিটিব মনে করে। আমি যেভাবে রিসার্চ করি, কারোর পছন্দ নাও হতে পারে, বা বিভিন্ন যুক্তি দেখাতে পারে।

যাই হোক, আমার ধারনা শেয়ার করবো, আপনার ধারনা ও কমেন্ট বক্সে শেয়ার করবেন, তাহলে আমরা সবাই শিখতে পারবো, একে ওপারের নলেজ শেয়ার হবে।

আর আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তবে, অবশ্যই আগের পর্ব গুলা পড়ে আসেন। না হলে, অনেক কিচু বুঝতে পারবেন না।

নিশ রিসার্চ করার জন্য নরমালি, যেটা করতে পারেন, গুগলে যেয়ে সার্চ দেন, নিশ লিষ্ট, দেখবেন হাজার হাজার নিশের লিষ্ট পেয়ে যাবেন। বা, আমার কাছে ও, ১৭০০ নিশের লিষ্ট আছে।

( তবে লিষ্ট থেকে, আসেপাশে যা কিচু আছে ভাবতে থাকেন, দেখেন অর্গানিক ভাবে মাথায় কি আসে বা আপনি কোন টপিকস বেশি পছন্দ করেন, সেটাই বেটার হবে)

এখন, এর মধ্যে থেকে যেগুলা আপনার, ভাললাগবে বা মনে করবেন এই নিশটা বা টপিকটাতে আমার ধারন আছে।।

ঐই “নিশ + প্রডাক্ট লিষ্ট “

বা, ” নিশ + একসেসরিস “

বা, ” নিশ + টুলস “

ব , ” নিশ + এলিমেন্ট “

ইত্যাদি ভাবে সার্চ করে, ঐ নিশের সব প্রডাক্ট গুলা, লিষ্ট করবেন। তারপর ঐ প্রডাক্ট গুলার, সাথে।

রিভিউ, বেষ্ট, আন্ডার $, ইত্যাদি যে রিভিউ এক্সটেইনশন আছে ওগুলা এড করে সার্চ ভলিউম চেক করে করে, প্রাথমিক ভাবে কিওয়ার্ড গুলা বাছাই করবেন।

তারপর ঐ লিষ্ট থেকে নিদিষ্ট এক এক টা প্রডাক্ট টি লিখে আমাজনে সার্চ করবেন। মনে করুন আপনি, এখন রিসার্ড করছেন, হোম নিশ, হোমের যেসব প্রডাক্ট থাকতে পারে , যেমন :

  • বেড
  • টেবিল
  • চেয়ার
  • আলমারি
  • ইত্যাদি ব্লা ব্লা ব্লা।

এই প্রতি প্রডাক্ট গুলার সাথে রিভিউ এক্সটেইনশন লাগায়ে সার্চ দিয়ে, প্রাথমিক ভাবে বাছাই করবেন। ( এগুলা হবে বেষ্ট প্রডাক্ট রিভিউ) তারপর, আমাজনে যেয়ে প্রতি প্রডাক্ট গুলা লিখে সার্চ দিবেন।

যেমন,” চেয়ার”।।

তারপর, যে রেজাল্ট গুলা আসবে, ওখান থেকে যেগুলা ভালো রিভিউ আছে, ঐ মডেল গুলা, সাথে রিভিউ কথা টি যোগ করে গুগলে সার্চ দিবেন।

সার্চ ভলিউম থাকলে, প্রাথমিক ভাবে বাছাই করে রাখবেন। দেখবে, আমাজন বেষ্ট সেলিং রাংকিং দেয়, ঐ লিষ্টে গেলে আপনার কাজটি সহজ হয়ে যাবে। ( এগুলা হলো সিঙ্গেল প্রডাক্ট রিভিউ কিওয়ার্ড)

তাপর, চেয়ারের প্রডাক্ট গুলা বিভিন্ন ব্রান্ডের পাবেন, ব্যান্ড নেম সাথে + রিভিউ বা আগে বেষ্ট যোগ করে সার্চ দিবেন, যদি সার্চ ভলিউম থাকে, প্রাথমিক ভাবে বাছাই করে রাখবেন।

( এগুলা হলো, ব্রান্ড + বেষ্ট প্রডাক্ট রিভিউ)

এভাবে, নতুন অবস্থায়, একটা নিশের মাক্সিমাম কিওয়ার্ড গুলা, বাছাই করতে ই, একদিন লেগে যেতে পারে, পরের এনালাইসিস বা রিসার্চ দুরের কথা। তাই, এই সেকশনে প্রচুর সময় দিতে হবে আপনাকে।।

এবার, আসি রিসার্চ সেকশনে :

নতুন সাইটের কিওয়ার্ড রিচার্স করার সময় আমি কিচু নিয়ম ফলো করি সেগুলা হলো।

১. কোন পেইড বা ফ্রি টুলসের ডিফিকাল্টি বিশ্বাস করিনা ( আপনাকে করতে নিষেধ করছি তা নয় তবে নতুন অবস্থায় না করা টা ভালো)

২. কম্পিটিটরদের ব্যাকলিং চেক করি না, ( অবাক লাগছে তাইনা)

৩. সার্চ ভলিউম বেশি কেয়ার করিনা। ( আপনাকে কেয়ার করতে নিষেধ করছি তা নয় তবে নতুন অবস্থায় না করা টা ভালো)

৪. রিভিও কিওয়ার্ডের জন্য প্রথম পেজে রাংক করা, ই-কমার্স সাইট গুলা কে পাত্তা দেই না, তাই যদি সে আমাজন ও হয় ( বি: দ্র : ই-কমার্স সাইট গুলার মধ্যে আমাজনের অন-পেজ এই.ই.ও সব চেয়ে ভালো ভাবে করে)

৫. কমপিটিটার দের, অনপেজ কে বেশি গুরুত্ব দেয়া।

৬. অথরিটি, সাইট গুলা থেকে ১০০ হাত দুরে থাকা।

১ নাম্বার পয়েন্ট : অনেকে হয়ত ahrefs বা semrush বা ubersuggest এর ডিফিকাল্টি ডাটা দেখে কিওয়ার্ড পিক করে নেয়, কয়মাস পর দেখে রাংক হচ্ছে না।।

কারন ওয়েবের টুলস হলো প্রগ্রাম, তারা মেশিনের মত ক্যালকুলেশন করে ডাটা দেখাবে। কিন্তু গুগল হলো আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন, অনেকটা মানুষের ব্রেনের মত কাজ করে গুগল, তাই টুলসের রাংকিং ডিফিকাল্টি নরমালি গভির ভাবে বিশ্লেশনের সময় বিশ্বাস করিনা।।

২ নাম্বার পয়েন্ট : কেন কম্পিটিটার দের ব্যাকলিংক চেক করিনা?

কারন, আমি একটা কিওয়ার্ড লিখে যখন গুগলে সার্চ করি, প্রথম পেজে যারা থাকে তাদের কনটেন্ট গুলা চেক করি,

যেমন :

১. লেন্থ কেমন।

২. রাইটিং কোয়ালিটি কেমন।

৩. সাইটের অথরিটি কেমন।

৪. কিওয়ার্ড ইউআরএল, টাইটেল, এ ফোকাস আছে কিনা, মানে আটিকেলের মধ্যে কিওয়ার্ড প্লেসমেন টিক আছে কিনা।

ইত্যাদি,

এসব গুলা দেখে যখন মনে হয়, কমপিটিটরদের অবস্থা ভালো, বা তারা ঐ কিওয়ার্ডের জন্য রাংক করাতে চায়, ( বা একটু অনপেজ ভালো হলে ই ঐ কিওয়ার্ড টি ইগনর করি)

ব্যাকলিংক পর্যন্ত যাইনা, কারন, একটা সাইটের অনপেজ যদি ভাল থাকে, তার ব্যাকলিংক করতে টাইম লাগবেনা। আর আমি তো এখনও পোষ্ট ই দেয়নি বা সাইট ই শুরু করেনি।

হয়ত, আমার সাইট নতুন বা শুরু ই করেনি। তাহলে, ওরা আমার থেকে অনেক এগিয়ে। তাহলে, ব্যাংলিক চেক করে মাথা ঘামানোর কিচু নেই, কম্পিটিটরদের অনপেজ ভালো থাকলে আমি, সেখানে আর নেই।

এবার তাহলে যখন দেখি, কম্পিটিটার দের অনপেজ ভালোনা, বা তারা অত সিরিয়াসলি কিওয়ার্ড কে টার্গেট করেনি, বা আটিকেল লেন্থ অনেক কম বা কোয়ালিটি খুব বাজে, তখন কি কিওয়ার্ড টাকে পিক করি? করি, তবে ছোট্ট একটা কাজ করি তার আগে।

সেটা হলো :

” অলইনটাইটেল : কিওয়ার্ড “

এবং ” অলইনইউআরল : কিওয়ার্ড “

লিখে সার্চ করি।

অথ্যাৎ কতটা পেজের টাইটেলে, বা ইউআরএলে এই কিওয়ার্ড টাকে ফোকাস করা। তবে, আমি এটা দেখিনা যে কতগুলা রেজাল্ট দেখাচ্ছে । আমি দেখি, যারা রেজাল্টে আছে, তাদের মধ্যে কারোর অনপেজ ভালো আছে কিনা।

এমন ও হতে পারে, নতুন কোন কমপিটিটর এই কিওয়ার্ড কে টার্গেট করেছে কিনা। যদি, দেখি সে নতুন না, অনেকদিন থেকে টার্গেট করছে কিন্তু রাংক করাতে পারছেনা। বোঝার চেষ্টা করি কোন সাইটে তার নমস্যা কেন রাংক করাতে পারছেনা।

যদি বুঝতে পারি তো ভালো, যদি না বুঝতে পারি, যদি মনে হয় এর তো অনপেজ ভালো কিন্তু কেন রাংক করছেনা। তখন ঐ কিওয়ার্ড টা বাদ দেয়, কারন একজন কিওয়ার্ড কে এত সুন্দর ভাবে টার্গেট করে রাংক করাতে পারেনি। তাহলে, আমার জন্য ও কষ্টকর হয়ে যাবে। কারন, আমি নতুন বা সাইট ই শুরু করিনি।

৩ নাম্বার : নতুন অবস্থায় ২ নং পয়েন্টের আলোচনা অনুযায়ী, একটা কিওয়ার্ড কে বেছে নিলে, আপনার সার্চ ভলিউম আশানুরুপ পাওয়া যাইনা, তাতে কষ্ট পেলে চলবেনা। কপাল ভাল হলে, পেয়ে যেতে পারেন। তবে, খেয়াল রাখবেন, একটু কম্পিশন কিন্ত সার্চ ভলিউম অনেক ভালো, এমন কিওয়ার্ড আছে কিনা। কারন, পরে আপনাকে ওগুলা টার্গেট করতে হবে।

৪ নাম্বার : অনেক সময় বা মাক্সিমাম সময় এমন হয়, একটা রিভিউ কিওয়ার্ড সার্চ দিলে। ফাষ্ট পেজে থাকা, মাক্সিমাম সাইট গুলা ই, ই-কমার্স সাইট। অনেকে এটা দেখে ভয় পেয়ে যায়।

ভয় পাওয়ার কিচু নেই, গুগল রিভিউ কিওয়ার্ডের জন্য রিভিউ পেজ গুলাকে দেখাতে চায়, কিন্তু ঐ কিওয়ার্ডের জন্য গুগল, ভাল কোন রিভিউ পেজ বা রিলেভেন্সি কোন পেজ কে পায়নি তাই, ই-কমার্স সাইটের পেজ গুলা কে সামনে আনে। যেটা, আপনার জন্য প্লাস পয়েন্ট।

৫ নাম্বার : এ বিষয় অলরেডি বলেছি, কম্পিটিটর দের, অন পেজ কে বেশি গুরুত্ব দিতে। তবে, শুধু দেখলেন কম্পিটিটরের আটিকেলের লেন্থ ভালো, কিওয়ার্ড, ইউআরএল বা টাইটেল এ আছে, এমন টা হলে চলবেনা। আটিকেল গুলা ভালোভাবে পড়ার চেষ্টা করবেন।

বা, একটা কাজ করতে পারেন, যদি দেখেন কম্পিটিটরের আটিকেলের লেন্থ বেশি, বা কিওয়ার্ড টাইটেল, ইউআরএল এ ফোকাস করছে। তবে ঐ ডোমেইন টা [ uberauggest (ফ্রী) বা ahrefs (পেইড), semrush (আংশিক ফ্রী) ]

যেকোন একটা টুলসে চেক করে দেখবেন, অর্গানিক ভিজিটার কেমন, যদি দেখেন ১কে বেশি। তবে ভাববেন এদের আটিকেল গুলা কোয়ালিটি আটিকেল। যদি অর্গনিক ভিজিটর কম দেখেন। তবে এটা শিওর হয়েন না যে কন্টেন্ট কোয়ালিটি খারাফ, একটু ভালোভাবে পড়ে চেক করে নিবেন।

৬ নাম্বার : অনেক সময় দেখা যায়, একটি রিভিউ কিওয়ার্ড সার্চ করলে, গুগলে এমন রেজাল্ট দেখায়, যে পেজ গুলাতে, ঐ কিওয়ার্ড টোটাল ই নেই, কিন্তু তাও প্রথম পেজে আছে।

যেমন : আপনার কিওয়ার্ড ” বেষ্ট ব্লেন্ডার ফর নিউ কিচেন”

ফাষ্টে যারা আছে , তাদের পেজে ফোকাস আছে ” বেষ্ট জুসার ” | কিন্তু ফাষ্টে যারা আছে, তাদের অথরিটি খনেক ভালো বা তাদের অর্গানিক ভিজিটর অনেক বেশি। আপনি ভাবছেন, ঐ পেজে ” বেষ্ট ব্লেন্ডার ফর নিউ কিচেন ” এটা ফাষ্ট পেজে যারা আছে তাদের পেজে নেই, এমন কি, কোথাও তো ব্লেন্ডার কথা ই নেই, আছে জুসার।

এর, মানে হল ঐ পেজ টি একটি এলএসআই কিওয়ার্ড, এ রাংকে আছে।

কিন্তু ঐ সাইটের অথরিটি বা অর্গানিক ভিজিটর ভাল থাকায়, ঐ সাইট থেকে দুরে থাকবেন, বা আমি থাকি আপনার বা আমার নতুন সাইট তাই বা আমাদের ইনভেষ্ট কম। তবে, যদি দেখি সাইটের অথরিটি কম তবে এমন এল.এস.আই তে রাংকে থাকলে কেয়ার করিনা।

যাই হোক অনেক কিচু বলে ফেললাম, আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন আগের পর্ব গুলা পড়ে আসুন আমার টাইমলাইনে শেয়ার করা আছে, এবং নতুনদের হয়ত অনেককিচু মাথার ওপর দিয়ে যেতে পারে,

চিন্তার কারন নাই, কমেন্ট বক্স তো আছে ই। আমি, বা এক্সপার্ট ভাইরা আছে উত্তর পেয়ে যাবেন। এত কষ্ট করে পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আর একটি কষ্ট করে শেয়ার করলে অন্যরাও পড়ার সুযোগ পাবে।।

Leave a Comment